আপনার হুরুব আছে কিনা চেক করুন

দেশের মানুষের গড় আয়ু ও শিক্ষার হার বৃদ্ধি পেয়েছে

 বর্তমানে প্রত্যাশিত আয়ুষ্কাল ৭২ দশমিক ৮ বছর।





আরেক দফা বৃদ্ধি পেয়েছে দেশের মানুষের গড় আয়ু। বর্তমানে প্রত্যাশিত আয়ুষ্কাল ৭২ দশমিক ৮ বছর। ২০১৯ সালে মানুষের গড় আয়ু ছিল ৭২ দশমিক ৬ বছর। তার আগের বছর ছিল ৭২ দশমিক ৩ বছর। এছাড়াও, দেশে শিক্ষার হার বেড়ে ৭৫ দশমিক ২ শতাংশ হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো।



দেশের মানুষের গড় আয়ু ও শিক্ষার হার বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে গড় আয়ু বেড়ে ৭২.৮ বছরে উন্নীত হয়েছে। ২০১৯ সালে গড় আয়ু ছিল ৭২.৬ বছর।






বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) ২০২০ সালের জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। গতকাল ২৭ জুন (সোমবার) রাজধানীর পরিসংখ্যান ভবন মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে জরিপের ফল প্রকাশ করা হয়।

জানা যায়, দেশে পুরুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু ৭১.২ বছর। নারীর গড় আয়ু ৭৪.৫ বছর।

জরিপে পাওয়া তথ্যমতে, দেশের জনসংখ্যা এখন ১৬ কোটি ৮২ লাখ। এর মধ্যে পুরুষ ৮ কোটি ৪২ লাখ। নারী ৮ কোটি ৪০ লাখ।


জরিপে বলা হয়েছে বর্তমানে জনসংখ্যার স্বাভাবিক বৃদ্ধির হার কমেছে। আগে যেখানে সংখ্যাটা ছিলো ১.৩২ শতাংশ বর্তমানে সেটা কমে দাঁড়িয়েছে ১.৩০ শতাংশে।




তবে দেশে জনসংখ্যার ঘনত্ব আগের বছরের তুলনায় বেড়েছে। বর্তমানে প্রতি বর্গকিলোমিটারে ১ হাজার ১৪০ জন বসবাস করে। আগের বছরে সেটা ছিল ১ হাজার ১২৫ জন।


অন্যদিকে দেশে শিক্ষার হার বেড়ে ৭৫ দশমিক ২ শতাংশ হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো।








এর আগে, ২০২০ সালে জানানো হয়েছিল দেশে সাক্ষরতার হার পূর্বের বছরের তুলনায় দশমিক ৮ শতাংশ পয়েন্ট বেড়ে ৭৪ দশমিক ৭০ শতাংশ হয়েছে। ২০১৯ সালে দেশে সাক্ষরতার হার ছিল ৭৩ দশমিক ৯০ শতাংশ।

উল্লেখ্য, ২০০৫ সালে দেশে সাক্ষরতার হার ছিল ৫৩ দশমিক ৫০ শতাংশ।
Source Bangla News

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন

نموذج الاتصال