আপনার হুরুব আছে কিনা চেক করুন

ভর্তুকি পাবেন নতুন প্রবাসী কর্মীরাও ,টুডে নিউস

 

নিজস্ব প্রতিবেদক (ঢাকা)

কোয়ারেন্টিনে পুরোনো প্রবাসী কর্মীদের পাশাপাশি এখন সৌদি আরবগামী নতুন কর্মীরাও পাবেন সরকারি ভর্তুকি। ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড থেকে ২৫ হাজার টাকা প্রদান করা হবে প্রত্যেক কর্মীকে। গত ২০ মে থেকে ৩০ জুনের মধ্যে যাঁরা সৌদি গেছেন বা যাচ্ছেন, এটি শুধু তাঁদের জন্য।



আজ বৃহস্পতিবার প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়। 
এর আগে গত ৭ জুলাই ‘ভর্তুকি পাবেন শুধু পুরোনো কর্মীরা’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে প্রথম আলো।
 শুরুতে শুধু পুরোনো কর্মীদের ভর্তুকি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল মন্ত্রণালয়।
সোর্স

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিএমইটির স্মার্ট কার্ডধারী বা ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের সদস্য হিসেবে নিবন্ধিত সৌদি আরবগামী নতুন-পুরোনো সব প্রবাসী কর্মীকে হোটেল কোয়ারেন্টিন খরচের সরকারি ভর্তুকি ২৫ হাজার টাকা প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।
 ৭ জুন প্রবাসীদের আবেদন নেওয়া শুরু হয়। অনলাইনে কিংবা নির্দিষ্ট জায়গা থেকে ফরম সংগ্রহ করে আবেদন করা যাবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড থেকে সংশ্লিষ্ট কর্মী বা তাঁর মনোনীত প্রতিনিধির ব্যাংক হিসাবে টাকা পাঠানো হবে। আবেদনের সঙ্গে বিএমইটি থেকে দেওয়া স্মার্ট কার্ড বা ইমিগ্রেশন ক্লিয়ারেন্স কার্ডের ফটোকপি, পাসপোর্টের প্রথম চার পৃষ্ঠার ফটোকপি, পাসপোর্টের সঙ্গে সংযুক্ত ভিসার ফটোকপি, টিকিটের ফটোকপি ও হোটেল বুকিংয়ের রসিদের ফটোকপি দিতে হবে।





প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.probashi.gov.bd বা ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের ওয়েবসাইট www.wewb.gov.bd বা বিএমইটির ওয়েবসাইট www.bmet.gov.bd থেকে আবেদনপত্র সংগ্রহ করা যাবে। দেশের তিনটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবস্থিত প্রবাসীকল্যাণ ডেস্ক থেকেও এটি সংগ্রহ করার সুযোগ থাকছে। বহির্গমনের আগে প্রবাসীকল্যাণ ডেস্কে আবেদন জমা দিতে হবে।

তবে যাঁরা ইতিমধ্যেই সৌদি চলে গেছেন, তাঁরা সৌদি আরবে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস, রিয়াদ বা বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল, জেদ্দায় ডাকে আবেদন জমা দিতে পারবেন।

দেশে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি বাড়তে থাকায় যাত্রীদের জন্য ১৭ মে কিছু বিধিনিষেধ জারি করে সৌদি সরকার। এটি ২০ মে থেকে কার্যকর হয়। এর ফলে কোয়ারেন্টিন প্যাকেজের জন্য (হোটেলভাড়া ও করোনা পরীক্ষার ফি) বাড়তি ৬০ থেকে ৭০ হাজার টাকা খরচ করতে হয় প্রবাসীদের।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন

نموذج الاتصال